বেহাল জলনিকাশির প্রশ্নে বেহালাবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন ফিরহাদ

২০২২ সালের জানুয়ারির মধ্যেই বেহালা উন্নত নিকাশি পরিকাঠামো পাবে বলে মত ফিরহাদের।

Updated By: Jun 17, 2021, 06:58 PM IST
বেহাল জলনিকাশির প্রশ্নে বেহালাবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন ফিরহাদ

নিজস্ব প্রতিবেদন: বৃষ্টি বাড়তেই জমছে জল। বেহালা অঞ্চলে প্রত্যাশামতো কাজ এগোয়নি নিকাশি-সংস্কারের। ক্ষুব্ধ পুরসভার মুখ্য প্রশাসক সমস্ত পক্ষকে নিয়ে সারলেন জরুরি বৈঠক। শহরবাসীর কাছে তাঁদের দুর্গতির জন্য ক্ষমাও চাইলেন তিনি।

শহরের জমে থাকা জলের জন্য এবং বিশেষত বেহালা এলাকায় জমে থাকা জলের জন্য শহরবাসীর কাছে হাত জোড় করে ক্ষমা চাইলেন পুরসভার বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের চেয়ারম্যান ফিরহাদ হাকিম।

আরও পড়ুন: জুলাইয়ের মধ্যে মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট, ঘোষণা Mamata-র; কীভাবে মূল্যায়ন?

বেহালা (Behala) এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে পরিবেশ ও পরিকাঠামো উন্নয়নের কাজ চলছে। কাজ চলছে নিকাশি ব্যবস্থার সংস্কারের ক্ষেত্রেও। কাজ হচ্ছে Kolkata Environmental Improvement Investment Program (KEIIP)-এর অধীনে। বেহালায় কলকাতা পরিবেশ উন্নয়ন প্রকল্পের দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ চলছে। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্কের (ADB) ঋণে প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকায় বেহালা এবং যাদবপুর এলাকার নিকাশির কাজ চলছে। 

কিন্তু প্রত্যাশামতো এগোয়নি কাজ। কী ব্যাপার তা জানতে আজ, বৃহস্পতিবার মল্লিকবাজারে KEIIP-ভবনে বৈঠক করলেন কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। 

জলনিকাশি সংক্রান্ত বেহালার যে সংস্কারকাজ ২০২০ সালেই শেষ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল, ২০২১ শেষ হতে চলল, সেই কাজ এখনও শেষ হয়নি। যেসব ঠিকাদার সংস্থা এই কাজের সঙ্গে যুক্ত তাদেরও এদিন বৈঠকে ডাকা হয়েছিল। মুখ্য প্রশাসক তাদের নির্দেশ দিয়েছেন, এই বছরের মধ্যে কাজ শেষ না হলে তাদের কালো তালিকাভুক্ত করা হবে। 

২০২২ সালের জানুয়ারির মধ্যে বেহালা এলাকায় উন্নত নিকাশি পরিকাঠামো তৈরি হয়ে যাবে বলে এদিন ফিরহাদ হাকিম আশ্বস্ত করেন। তাঁর কথায়, যদি ২০২১ সালের মধ্যে ঠিকাদার সংস্থার তত্ত্বাবধানে কাজ শেষ না হয়, তা হলে আর তাদের কাজ করতে হবে না। পুরসভা (Corporation) সেক্ষেত্রে নিজের কাজ নিজেই করে নেবে।

প্রতি বর্ষায় বেহালা যেভাবে জলমগ্ন হয়ে পড়ে, যেভাবে তীব্র সমস্যার মধ্যে দিয়ে দিনযাপন করেন সেখানকার এলাকাবাসী, সেজন্য ফিরহাদ দুঃখ প্রকাশ করেন। বৃহস্পতিবার ঠিকাদার সংস্থার কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পরে সাংবাদিক বৈঠকের মধ্যে দিয়ে এ বিষয়ে ক্ষমাও চান ফিরহাদ। তিনি বলেন, বেহালা এবং সমগ্র কলকাতাবাসীর কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আগামী বছরের মধ্যে গোটা কলকাতায় নিকাশি পরিকাঠামো আমরা আরও উন্নত করব।

প্রসঙ্গত, বেহালা এবং যাদবপুর মিলিয়ে মোট ১০৯ কিলোমিটার নিকাশি পরিকাঠামোর উন্নয়নকাজ চলছে।

পাশাপাশি কেইআইআইপি'র অধীনে কলকাতা পুরসভার অন্তর্গত যে সব এলাকায় পানীয় জল (Drinking Water) প্রকল্পের কাজ চলছে, তা শেষ করতেও এদিন সময়সীমা বেঁধে দেন ফিরহাদ। কোনও মতেই এই সব প্রকল্পের কাজ দেরিতে শেষ করা চলবে না বলে সাফ নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

(Zee 24 Ghanta App : দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)

আরও পড়ুন: 'শিল্পীদের ব্যারিকেড হয় না, তাঁরা দলে ফিরতে চাইলে বাধা দেওয়া উচিৎ নয়' :Raj