“গুজব রটানো হচ্ছে, বিকাশরঞ্জনবাবু মুকুল রায়ের হয়ে কোনও মামলা লড়ছেন না”

মঙ্গলবার একটি সূত্র মারফত জানা যায়, বিধায়ক খুনে মুকুল রায়ের আগাম জামিনের মামলায় লড়বেন বিকাশবাবু।  এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পরই রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে যায়। 

Updated By: Feb 13, 2019, 06:14 PM IST
“গুজব রটানো হচ্ছে, বিকাশরঞ্জনবাবু  মুকুল রায়ের হয়ে কোনও মামলা লড়ছেন না”

নিজস্ব প্রতিবেদন:  বিধায়ক খুনে  মুকুল রায়ের আগাম জামিনের মামলায় লড়ছেন না আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। বুধবার আলিমুদ্দিন সূত্রে তেমনটাই দাবি করা হয়েছে।  সিপিএমের অভিযোগ, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মিথ্যা খবর পরিবেশন করা হচ্ছে। বিকাশবাবু মুকুল রায়ের হয়ে কোনও মামলা লড়ছেন না বলে দাবি সিপিএমে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার একটি সূত্র মারফত জানা যায়, বিধায়ক খুনে মুকুল রায়ের আগাম জামিনের মামলায় লড়বেন বিকাশবাবু।  এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পরই রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে যায়। অনেকেই প্রশ্ন তোলেন, বিকাশবাবু কেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের হয়ে মামলায় লড়বেন? রাজনীতিবিদদের একাংশ অবশ্য দাবি করেন, আইনজীবী হিসাবে বিকাশবাবু এই মামলা লড়তেই পারেন। সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই সংক্রান্ত একাধিক খবর পোস্ট করা হয়। এরপরই ময়দানে নামে সিপিএম নেতৃত্ব।  রাতে সিপিএমের তরফে ঘোষণা করা হয়, এই খবর মিথ্যা, গুজব রটানো হচ্ছে।

আরও পড়ুন: বিধায়ক খুনে মুকুলের আগাম জামিনের মামলা লড়ছেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য?

কৃষ্ণগঞ্জের বিধায়ক সত্যজিত্ বিশ্বাস খুনের ঘটনায় মুকুল রায়-সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে হাঁসখালি থানায় এফআইআর দায়ের হয়েছে। ইতিমধ্যেই ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। সোমবার সত্যজিতের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সত্যজিতের  স্ত্রী ও দেড় বছরের সন্তানের দায়িত্ব নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।  সেদিন নাম না করে মুকুল রায়কে খোঁচা দিয়ে অভিষেক বলেন, “ঘাড় ধরে প্রত্যেক অভিযুক্তকে জেলে ঢোকাব।  দিল্লির নেতাদের পাজামা ধরে রেখেও পার পাবেন না কেউ। প্রত্যেক অভিযুক্তকে শাস্তি পেতে হবে।” অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যের পরদিনই,  মঙ্গলবার সকালে আগাম জামিনের আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন মুকুল রায়।

মুকুল রায়ের অভিযোগ, ২০১৭ সালে তৃণমূল কংগ্রেস  ছাড়ার পর  তাঁর বিরুদ্ধে মোট ২৫ টি মামলা করা হয়। এর মধ্য ১২ টি মামলা খারিজ করে দেয় আদালত। আরও সাতটা মামলা করা হয় তাঁর বিরুদ্ধে।  রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়েই এভাবে তৃণমূল মামলা করছে বলে অভিযোগ তাঁর। এরপরই বিকাশবাবুর এই মামলা লড়ার গুজব প্রকাশ্যে আসে।