সবরমতীর ভিজিটর্স বুকে গান্ধী সম্পর্কে একটি কথাও লিখলেন না ট্রাম্প, সরব কংগ্রেস

যে কোনও রাষ্ট্রনেতা গুজরাটে এলেই একবার সবরমতী আশ্রমে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সোমবার আহমেদাবাদে এসে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত আশ্রমে গিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। কিন্তু ভিজিটর্স বুকে ট্রাম্প যা লিখেছেন তা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে।

Updated By: Feb 24, 2020, 07:09 PM IST
সবরমতীর ভিজিটর্স বুকে গান্ধী সম্পর্কে একটি কথাও লিখলেন না ট্রাম্প, সরব কংগ্রেস

নিজস্ব প্রতিবেদন: যে কোনও রাষ্ট্রনেতা গুজরাটে এলেই একবার সবরমতী আশ্রমে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সোমবার আহমেদাবাদে এসে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত আশ্রমে গিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। কিন্তু ভিজিটর্স বুকে ট্রাম্প যা লিখেছেন তা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে।

আরও পড়ুন-সন্ত্রাসবাদ নিয়ে কড়া বার্তা দিলেও, পাকিস্তান সম্পর্কে ‘নরম’ সুর ডোনাল্ড ট্রাম্পের

সবরমতী আশ্রমের ভিজিটর্স বুকে ডোনাল্ড ট্রাম্প লিখেছেন, ‘বন্ধু প্রধানমন্ত্রী মোদী....এই সফরের জন্য ধন্যবাদ’। এর বাইরে আর কোনও কথা নেই। নীচে সাক্ষর করে কাজ সেরেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। অর্থাত্ গান্ধীর আশ্রমে এসে তাঁর সম্পর্কে একটা কথাও লেখেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এদিন ট্রাম্প আসার আগেই সবরমতী আশ্রমে চলে আসেন  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট আশ্রমে আসার পর তাঁকে গোটা আশ্রম ঘুরে দেখান মোদী। প্রধানমন্ত্রী ট্রাম্পকে নিয়ে যান হৃদয় কুঞ্জে। এই ঘরেই স্ত্রী কস্তুরবা গান্ধীর সঙ্গে থাকতেন গান্ধীজি।

আশ্রমে চরকায় সুতো কাটারও চেষ্টা করেন ট্রাম্প। তাঁকে সাহায্য করেন আশ্রমেরই এক কর্মী।

সবরমতী আশ্রমের ভিজিটর্স বুকে গান্ধীর নাম উল্লেখ না করায় ট্রাম্পের সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। ভিজিটর্স বুকের একটি ছবি টুইট করে কংগ্রেস নেতা মণীশ তিওয়ারি লিখেছেন, দেখুন এটা ডোনাল্ড ট্রাম্পের নোটের ছবি। কোথাও মহাত্মা গান্ধীর উল্লেখ নেই। উনি কি আদৌ জানেন মহাত্মা গান্ধী কে ছিলেন?

আরও পড়ুন-বাড়ি থেকে অ্যাডমিট কার্ড এনে দিয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে সাহায্য কলকাতা পুলিসের

সবরমতীতে এসে মহাত্মা গান্ধীর প্রশংসা করেছিলেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। মণীশ তিওয়ারি লিখেছেন, এখানেই তফাত বোঝা যায়। ওবামা গান্ধী সম্পর্কে লিখেছিলেন, উনি শুধু ভারতের হিরো নন, গোটা দুনিয়ার হিরো।

মণীশ তিওয়ারির পাশাপাশি সামালোচনায় সবর হলেন শশী থারুরও। তিনি লিখেছেন, মহাত্মা গান্ধীর জায়গাতে গিয়েই তাঁকে মুছে ফেলার চেষ্টা মোদী-ট্রাম্পের।

Tags: