দিকে দিকে তৃণমূল ছাড়ার হিড়িক! বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূমে বড়সড় ভাঙন

দলত্যাগের হিড়িক বিভিন্ন জেলায়।

Updated By: Dec 18, 2020, 05:35 PM IST
দিকে দিকে তৃণমূল ছাড়ার হিড়িক! বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূমে বড়সড় ভাঙন

নিজস্ব প্রতিবেদন- উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদ শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ পদ থেকে ইস্তফা দিলেন ফিরোজ কামাল (বাবু মাষ্টার)। জেলা পরিষদ দুর্নীতির পাহাড় বলে বিষ্ফোরক মন্তব্য বাবু মাষ্টারের। নাম না করে জেলা পরিষদের এক প্রভাবশালী কর্মাধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন তিনি। সভাধিপতি না থাকায় সেক্রেটারি-কে তাঁর পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। 

এদিকে পাথরচাপুরি উন্নয়ন পরিষদের প্রাক্তন সদস্য করম হোসেন খান তৃণমূল ছাড়লেন। রওনা দিলেন মেদিনীপুরের উদ্দেশে। সেখানেই দলের উপর একাধিক ক্ষোভ দেখিয়ে বিজেপিতে যোগদানের কথা জানালেন তিনি। জানালেন,  তিনি দাদার অনুগামী। সুত্রের খবর,  তৃণমূল আরেক পুরনো নেতা সিউড়ির অভয় ভট্টাচার্যও মেদিনীপুরের উদ্যেশে গিয়েছেন। সেখানে তিনিও বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন। সিউড়ি শহর তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি তিনি।

অন্যদিকে, পুরুলিয়া জেলা তৃণমুল কংগ্রেসেও দল ছাড়ার হিড়িক পড়েছে। আজ পুরুলিয়া শহরের অফিসে এসে দল থেকে পদত্যাগের চিঠি দিলেন বলরামপুর পঞ্চায়েত সমিতির তৃণমূল সদস্য সুদীপ মাহাত। তাঁর দাবি, এক সময় দলের হয়ে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন। আজ দলটা বিক্রি হয়ে গিয়েছে। 'ভাইপো' তৃণমূলে শুধু ধান্দাবাজদের সুযোগ করে দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

আরও পড়ুন-  'সাম্প্রদায়িক শক্তির সর্দার অমিত শাহ-এর ঠাঁই নেই' বিশ্বভারতীতে এবার DSOর পোস্টার

প্রাক্তন মন্ত্রীকে অনুসরণ করে এবার দলত্যাগ করলেন বিষ্ণুপুর পুরসভার প্রাক্তন উপ পুরপ্রধান-সহ বারো জন প্রাক্তন কাউন্সিলার। 
রাজ্যের প্রাক্তন বস্ত্রমন্ত্রী তথা বিষ্ণুপুর পুরসভার প্রাক্তন পুরপ্রধান শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বৃহস্পতিবার তৃণমূল ছাড়ার ঘোষণা করেছিলেন। আজ তাঁর পথ অনুসরণ করে দলত্যাগ করলেন ওই পুরসভার প্রাক্তন উপ পুরপ্রধান বুদ্ধদেব মুখার্জী-সহ বারো জন প্রাক্তন কাউন্সিলার। ওই বারো জন দলত্যাগের সিদ্ধান্ত লিখিতভাবে পাঠিয়ে দেন তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরার কাছে। দলত্যাগী প্রাক্তন কাউন্সিলারদের দাবি, তাঁরা আগামীকাল অমিত শাহর জনসভায় বিজেপিতে যোগ দেবেন। তাঁদের দাবি, গত দেড় বছর ধরে দল তাঁদের যোগ্য সম্মান দেয়নি। শুধু তাই নয়, মানুষের জন্য কাজ করার ক্ষেত্রেও বাধা দিয়েছেন দলের একাধিক নেতা। প্রাক্তন কাউন্সিলারদের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন সদ্য দলত্যাগ করা প্রাক্তন বস্ত্রমন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়।