WB assembly election 2021 : "ভোটের দিনে হিংসা, রাজ্যের ৫০ বছরের ট্র্যাডিশন এবার ভাঙুন"

"আইনের চোখে সবাই সমান। তাই কাউকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া যাবে না।"

Updated By: Mar 25, 2021, 07:02 PM IST
WB assembly election 2021 : "ভোটের দিনে হিংসা, রাজ্যের ৫০ বছরের ট্র্যাডিশন এবার ভাঙুন"

নিজস্ব প্রতিবেদন : একুশের ভোটকে (WB assembly election 2021) মডেল নির্বাচন হিসেবে তুলে ধরতে কমিশনের পর এবার কড়া নবান্নও। রাজ্যে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করতে এদিন জেলাশাসক ও পুলিস সুপারদের কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যসচিব ও ডিজি। তাঁদের স্পষ্ট বার্তা, "কোনও অ্যাকশন নেওয়ার জন্য উপরতলার নির্দেশের মুখাপেক্ষী হয়ে না থেকে বরং 'রুল বুক' মেনে আইন অনুযায়ী যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নিন। ভোটের দিনে হিংসা, রাজ্যের ৫০ বছরের ট্র্যাডিশন এবার ভাঙুন।"

রাজ্যে প্রথম দফার ভোট (WB assembly election 2021) শনিবার, ২৭ মার্চ। প্রথম দফায় ভোট রয়েছে পটাশপুর, কাঁথি উত্তর, ভগবানপুর, খেজুরি, কাঁথি দক্ষিণ, রামনগর, এগরা, দাঁতন, নয়াগ্রাম, গোপীবল্লভপুর, ঝাড়গ্রাম, কেশিয়াড়ি, খড়গপুর, গড়বেতা, শালবনি, মেদিনীপুর, বিনপুর, বান্দোয়ান, বলরামপুর, বাঘমুন্ডি, জয়পুর, পুরুলিয়া, মানবাজার, কাশীপুর, পারা, রঘুনাথপুর, শালতোড়া, ছাতনা, রানিবাঁধ, রাইপুরে। আর দ্বিতীয় দফায় ১ এপ্রিল ভোট রয়েছে গোসাবা, পাথরপ্রতিমা, কাকদ্বীপ, সাগর, তমলুক, পাঁশকুড়া পূর্ব, পাঁশকুড়া পশ্চিম, ময়না, নন্দকুমার, মহিষাদল, হলদিয়া, নন্দীগ্রাম, চণ্ডীপুর, খড়্গপুর সদর, নারায়ণগড়, সবং, পিংলা, ডেবরা, দাসপুর, ঘাটাল, চন্দ্রকোনা, কেশপুর, তালডাংরা, বাঁকুড়া, বড়জোড়া, ওন্দা, বিষ্ণুপুর, কোতলপুর, ইন্দাস, সোনামুখীতে। তার আগে এদিন প্রথম ও দ্বিতীয় দফার জেলাগুলির নির্বাচনী আধিকারিক, পুলিস প্রসাশনের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যসচিব ও ডিজি।

সেখানেই নিয়ম মেনে ভোট করার জন্য জেলাশাসক ও পুলিস সুপারদের কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যসচিব ও ডিজি। সূত্রের খবর, বৈঠকে মুখ্যসচিব ও ডিজি বলেন, "ভোট (WB assembly election 2021) হবে ভোটের মতোই। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য যা যা পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজন, সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। এরাজ্যের ভোটে হিংসার ট্র্যাডিশন আছে। ৫০ বছরের ট্র্যাডিশন ভোটের দিনে হিংসা। এবার এই ট্র্যাডিশন ভাঙতে হবে। সেটা মাথায় রেখেই পরিকল্পনা করতে হবে। পাশাপাশি ছাপ্পা ভোটের নজিরও আছে। কমিশন এগুলো বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। তাই অ্যাকশন নেওয়ার জন্য উপরতলার মুখাপেক্ষী হওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। রুল বুক মেনে অর্থাৎ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিন। আইনের চোখে সবাই সমান। তাই কাউকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া যাবে না।"

ভোটগ্রহণ অবাধ ও সুষ্ঠু করতে সূত্রের খবর এদিনের বৈঠকে ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া ও পশ্চিম মেদিনীপুরের সীমানা সিল করার বিষয়ে গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে বোমা, অস্ত্র উদ্ধারে জোর দিতে বলা হয়েছে। সীমান্তে নাকা চেকিং জারি রাখতে বলা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। 

আরও পড়ুন, প্রথম দফার ভোটের ২ দিন আগে ৪ পুলিস কর্তা সহ জেলাশাসক বদলি কমিশনের