পরিচারিকা ছুটিতে, বাড়িতে থেকে কাজ করার সঙ্গে বাসনও মাজলেন মীর

একই পরিস্থিতি জনপ্রিয় অভিনেতা, সঞ্চালক তথা কৌতুকশিল্পী মীর-এর।

Reported By: রণিতা গোস্বামী | Updated By: Mar 25, 2020, 07:18 PM IST
পরিচারিকা ছুটিতে, বাড়িতে থেকে কাজ করার সঙ্গে বাসনও মাজলেন মীর

নিজস্ব প্রতিবেদন : করোনার প্রকোপে দেশের প্রায় সব তারকাই তাঁদের গৃহবন্দি জীবন কাটাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, লকডাউনের এই সময়ে তাঁদের বাড়ির পরিচারিকারাও ছুটিতে। অগত্যা বাড়ির সব কাজ নিজেদেরই করতে হচ্ছে তারকাদেরও। একই পরিস্থিতি জনপ্রিয় অভিনেতা, সঞ্চালক তথা কৌতুকশিল্পী মীর-এর।

গৃহবন্দি এই পরিস্থিতিতে অনেকেই বাড়ি থেকে কাজ করছেন। জনপ্রিয় একটি রেডিও চ্যানেলের সঞ্চালক মীরকেও বাড়ি থেকে রেডিও শো করতে হয়েছে। এখানেই শেষ নয়। নিজের রেডিও শোয়ের শেষে বাড়ির কাজও নিজের হাতেই করতে হচ্ছে সঞ্চালক, অভিনেতা তথা কৌতুকশিল্পীকে। নিজের ফেসবুকে সেই ভিডিয়ো পোস্টও করেছেন মীর। তিনি বলেন, ''কোনওদিন ভাবিনি যে নিজের বাসন নিজে ধুতে হবে। তবে আজকে সেটা করতে হচ্ছে, কারণ এই পরিস্থিতিও আগে কখনও হয়নি। অনেকে আমায় প্রশ্ন করতেন আমি এত সকালে উঠে কী করি? আমি মজা করে বলতাম, আমি বাসন মাজার কাজ করি, তারপর রেডিও শো করতে যাই। কিন্তু আজকে সেটা সত্যিই করতে হচ্ছে। তবে এতে কোনও লজ্জা নেই। নিজের কাজ নিজে করার একটা আনন্দ রয়েছে। এই ভিডিয়োতে আপনাদের দেখানোর জন্য বাসন ধুচ্ছি তা নয়, আমার এমনিতেও এঁটো বাসন বেসিনে পড়ে থাকতে দেখলে ভালো লাগে না। তাই অনেক সময় ধুয়েও নি।''

আরও পড়ুন-করোনার প্রকোপে গৃহবন্দি দেব ও রুক্মিণী কীভাবে সময় কাটাচ্ছেন?

মীর আরও বলেন, ''আপনারা দেখছেন বাসন মাজার সময় আমি কলটা বন্ধ রেখেছি, কারণ জলের অপচয় যাতে না হয়, সেটাও দেখা উচিত। আর যতটা প্রয়োজন ততটাই জল ব্যবহার করা উচিত।'' এভাবেই এই ভিডিয়োর মাধ্যমে নিজের কাজ নিজে করার বার্তা দেন মীর। পাশাপাশি সমস্ত কাজের পরে বারবার নিজের হাত ধোয়ার পরামর্শ দেন অভিনেতা। পাশাপাশি কঠিন এই যুদ্ধে সকলকে লড়াই করার পরামর্শ দেন তিনি।

আরও পড়ুন-করোনার প্রকোপে সামাজিকভাবে বিচ্ছিন্নতার নির্দেশিকা উপেক্ষা করে জমিয়ে পার্টি কঙ্গনার!

তবে অবশ্য শুধু মীর নন, বর্তমান এই পরিস্থিতিতে সামাজিক সুরক্ষার জন্যই অনেকেই নিজেদের বাড়ির পরিচারিকাদের ছুটি দিয়েছেন এবং নিজেরাই বাড়ির কাজ সামলাচ্ছেন। সেই সমস্ত ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতেও দেখা গিয়েছে অনেক তারকাকে।