ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে আমায় চুপ করাতে চাইছে রাক্ষসী মমতা: Kangana

অভিনেতার ইনস্টা স্টোরিতে জ্বলজ্বল করছে তাঁর বিরুদ্ধে করা এফ আই আরের ছবি। এই ছবি পোস্ট করে কঙ্গনা লেখেন - ' রক্তখেকো রাক্ষসী মমতা, তিনি তাঁর শক্তি দিয়ে আমায় চুপ করাতে চাইছেন'। 

Edited By: অনুসূয়া বন্দ্যোপাধ্যায় | Updated By: May 7, 2021, 11:48 PM IST
ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে আমায় চুপ করাতে চাইছে রাক্ষসী মমতা: Kangana

নিজস্ব প্রতিবেদন: টুইটারে তাঁকে সাসপেন্ড করা হয়েছে, তারপরও থেকে থেকে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। এবার টুইটার ছেড়ে ইনস্টাগ্রামকে অবলম্বন করেছেন তিনি । ইনস্টা-স্টোরিতে ভেসে উঠছে কুকথার বন্যা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) প্রথম থেকেই টার্গেট করেছেন অভিনেতা। এবার মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি 'রাক্ষসী' বলে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

বৃহস্পতিবার থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে নিশানা করে একের পর এক পোস্ট করে চলেছেন তিনি। প্রথমে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি বিকৃত করে পোস্ট করতে থাকেন। এরপর শুক্রবার ইনস্টা স্টোরিতে জ্বলজ্বল করছে তাঁর বিরুদ্ধে করা এফ আই আরের কপি। এই ছবি পোস্ট করে কঙ্গনা লেখেন - ' রক্তখেকো রাক্ষসী মমতা, তিনি তাঁর শক্তি দিয়ে আমায় চুপ করাতে চাইছেন'। 

কঙ্গনার অভিযোগ ভোট পরবর্তী হিংসায় বর্তমানে বাংলায় প্রতিদিন মৃত্য়ু হচ্ছে তৃণমূলের বিরোধী দলের কর্মীদের। হামলা চলছে বড়িতেও। মমতার রাজত্বে হিন্দুদের গণহত্যা হচ্ছে। এই বলে সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে আঙুল তোলেন অভিনেতা। মুখ্যমন্ত্রীকে আবারও আক্রমণ করায় সর্বত্র নিন্দার ঝড় উঠেছে।কঙ্গনার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিয়েছেন তৃণমূলের মুখপাত্র ঋজু দত্ত। গত বৃহস্পতিবার বিধাননগর থানায় সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগে অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন তিনি। সেই ছবিই নিজের ইনস্টা স্টোরিতে আপডেট করেন কঙ্গনা। সঙ্গে হিংসার কিছু ছবিও আপলোড করেন অভিনেত্রী। এছাড়া এদিন গান্ধীমূর্তির পাদদেশে হিংসার প্রতিবাদে বিজেপি রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গাঙ্গুলি ও বিজেপির নব নির্বাচিত বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পালকে আটক করা হয়। করোনা বিধি লঙ্ঘন করার অপরাধে আটক করা হয় তাঁদের। এর বিরুদ্ধেও গর্জে ওঠেন কঙ্গনা (Kangana Ranaut)।

কঙ্গনার এ ধরনের পোস্ট পশ্চিমবঙ্গে সাম্প্রদায়িক অশান্তি বাড়িয়ে দিতে পারে, প্রতিটি অনুষ্ঠানে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আর্জি শান্তি বজায় রাখা, তার মাঝেই কঙ্গনার এই ধরনের মন্তব্য আরও আগুনে ঘি ঢালার মতোই ঘটনা, মত তৃণমূলের। দলের আদর্শের সঙ্গে একমত না হতেই পারে, তবে রুচি এত নীচে নামিয়ে আনা সকলের ক্ষেত্রেই দুঃখজনক। জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত একজন অভিনেত্রীর কাছ থেকে এটা আশা করা যায় না, মত তৃণমূলের একাংশের।

আরও পড়ুন- বলিউড ইন্ডাস্ট্রির কাছে ত্রাতার ভূমিকায় এলেন ভাইজান