close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

আরাবুল-হাকিমুলের থাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ভাঙড়ে পোলেরহাটে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন ঘিরে টানটান উত্তেজনা

এলাকায় শান্তি বজায় রাখতে সকাল থেকেই প্রশাসনের তরফে মাইকিং করা হচ্ছিল। বোর্ড গঠনকে ঘিরে অশান্তির আশঙ্কায় এদিন এলাকায় বেশ কিছু স্কুলও বন্ধ রাখা হয়েছে।  

Arkamoy Datta Majumdar | Updated: Aug 14, 2019, 12:08 PM IST
আরাবুল-হাকিমুলের থাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ভাঙড়ে পোলেরহাটে পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন ঘিরে টানটান উত্তেজনা

 নিজস্ব প্রতিবেদন: পোলেরহাট ২ নম্বর পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন ঘিরে ফের টানাপোড়েন। বোর্ডে আরাবুল-হাকিমুলের থাকা নিয়ে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা। এদিকে জমি রক্ষা কমিটির প্রস্তাব অনুযায়ী, তৃপ্তি বিশ্বাস প্রথমে পঞ্চায়েত প্রধান হতে রাজি হলেও এখন বেঁকে বসেছেন তিনিও। অভিযোগ, তৃপ্তি বিশ্বাসের ওপর চাপ তৈরি করা হয়েছে, তাই তিনি প্রধান হতে চাইছেন না। অশান্তির আশঙ্কায় বুধবার সকাল থেকেই আঁটোসাঁটো ছিল নিরাপত্তা। এলাকায় শান্তি বজায় রাখতে সকাল থেকেই প্রশাসনের তরফে মাইকিং করা হচ্ছিল। বোর্ড গঠনকে ঘিরে অশান্তির আশঙ্কায় এদিন এলাকায় বেশ কিছু স্কুলও বন্ধ রাখা হয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ টালবাহানার পর আদালতের নির্দেশে বুধবার বোর্ড গঠন হওয়ার কথা পোলেরহাট দুই নম্বর পঞ্চায়েতে। বোর্ডে আরাবুল ইসলামের ছেলে হাকিমুলকে রাখা যাবে না বলে দাবি করে জমি রক্ষা কমিটি। এক্ষেত্রে কমিটি প্রধান হিসাবে তৃপ্তি বিশ্বাস নামে তৃণমূলেরই একজনের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে।

আর এই নিয়ে উত্তেজনা ভাঙড়ে। সকাল থেকেই ভাঙড়ে স্লোগান উঠছে, আরাবুলের নেতৃত্বে বোর্ড কিছুতেই মানা হবে না। এমনকি রাস্তায় বসে পড়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন জমি রক্ষা কমিটির সদস্যরা। বিক্ষোভে সামিল হন মহিলারাও।

বরানগরে বারসিঙ্গারের মৃত্যু ঘিরে রহস্য, সহকর্মীদের কথায় একাধিক অসঙ্গতি

গণ্ডগোলের আশঙ্কায় এলাকায় জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় ৮০০ পুলিস। পঞ্চায়েত সংলগ্ন প্রায় দুশো মিটার ২৫ টি সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের নির্বাচনে এই পঞ্চায়েতে ১৬টি আসনের মধ্যে পাঁচটি আসনে জয়ী হয় জমি রক্ষা কমিটি। সেইসময়ই এলাকায় শান্তি রাখার আবেদন নিয়ে জেলাশাসকের কাছে দরবার করা হয়। স্থায়ী বোর্ড গঠন না করে প্রশাসন দিয়ে পঞ্চায়েত চালানোর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ১৯ মে প্রশাসন দিয়ে পঞ্চায়েত চালানোর মেয়াদ শেষ হয়েছে। ২৫ জুন বোর্ড গঠনের বিজ্ঞপ্তি দেয় সরকার। এরপরই আদালতের দ্বারস্থ হয় জমি রক্ষা কমিটি। ১৪ অগাস্ট বোর্ড গঠনের নির্দেশ দেয় হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।