বুথের বাইরে আড্ডার মেজাজে কেন্দ্রীয় পুলিস, আর ভিতরে রাজ করছে রাজ্য পুলিস

একই বুথে দুই অনিয়ম। বুথের ভিতর তৃণমূল নেতাদের দাপট। আর বুথ পাহাড়ায় রাজ্য পুলিস। এক জায়গায় নয়, পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর ও বলরামপুরে একই ছবি ধরা পড়ল। ২৪ ঘণ্টায় ছবি দেখানোর পর সরিয়ে দেওয়া হয় প্রিসাইডিং অফিসারকে।  

Updated By: Apr 4, 2016, 07:26 PM IST
বুথের বাইরে আড্ডার মেজাজে কেন্দ্রীয় পুলিস, আর ভিতরে রাজ করছে রাজ্য পুলিস

ওয়েব ডেস্ক: একই বুথে দুই অনিয়ম। বুথের ভিতর তৃণমূল নেতাদের দাপট। আর বুথ পাহাড়ায় রাজ্য পুলিস। এক জায়গায় নয়, পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর ও বলরামপুরে একই ছবি ধরা পড়ল। ২৪ ঘণ্টায় ছবি দেখানোর পর সরিয়ে দেওয়া হয় প্রিসাইডিং অফিসারকে।  

এছবি বলরামপুরের গাড়া ফুসরা প্রাইমারি স্কুলের ২৩৯ নম্বর বুথের। ছড়ি ঘোরাচ্ছেন তৃণমূলের দুই পোলিং এজেন্ট। ইভিএমের সামনে ওঁরা কী করছেন? বিরোধীদের অভিযোগ, সাহায্যের নামে ভোটারদের নির্দেশ দিচ্ছেন ওই দুই পোলিং এজেন্ট।

কিন্তু কেন্দ্রীয় পুলিস কোথায়? তাঁরা তখন বাইরে। আর ভিতরে রাজ রাজ্য পুলিসের। এ ছবি ২৪ ঘণ্টায় দেখানোর পর তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেয় নির্বাচন কমিশন। ওই বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকে সরিয়ে দেওয়া হয়। রিপোর্ট চাওয়া হয় পুরুলিয়ার জেলাশাসক তন্ময় চক্রবর্তীর কাছে।

বলরামপুরের একেবারে ফটোকপি রঘুনাথপুরে। উচ্চতর বালিকা বিদ্যালয়ে বুথের ভিতর রাজ্য পুলিসের হোমগার্ড। বুথের বাইরে আড্ডার মেজাজে কেন্দ্রীয় পুলিস। বুথের ভিতর রঘুনাথপুরের পুরপ্রধান, এলাকার তৃণমূল নেতা ভবেশ চ্যাটার্জির দলবল নিয়ে রাজ।

২৪ ঘণ্টার প্রতিনিধি পৌছতেই হুঁশ ফিরল। পুলিস এসে বন্ধ করে দিল অবাধ প্রবেশ। বাইরে বের করে দেওয়া হয় তৃণমূল নেতাদের। ভবেশ চ্যাটার্জির দাবি, তিনি বুথে ঢুকেছিলেন, কিন্তু ভোটারদের প্রভাবিত করেননি।

কথা ছিল বুথ পাহারায় থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। কিন্তু পুরুলিয়ার বলরামপুর ও রঘুনাথপুরে এই বিপরীতধর্মী ছবি বলে দিল, কমিশনের নির্দেশ পালন হয়নি ঠিকঠাক।